Slik.Shari-2

কিভাবে সিল্কের শাড়ি যত্নে রাখবেন!!

বিডিকষ্ট ডেস্ক

 

সিল্কের শাড়ির কালেকশন সবারই থাকে। দীর্ঘ দিন ব্যবহার করা যায় সিল্কের শাড়ি। তাই এর যত্নেরও প্রয়োজন সেভাবে। জেনে নিন কিভাবে যত্নে রাখবেন আপনার প্রিয় সিল্কের শাড়ি। সিল্কের শাড়ি ড্রাই ক্লিন করতে পারলে ভালো হয়। বিশেষ করে পানিতে ক্লোরিনের মাত্রা বেশি থাকলে সিল্কের রঙ হলুদ হয়ে যেতে পারে।

বেশিক্ষণ সিল্কের শাড়ি পানিতে ভিজিয়ে রাখবেন না। একবার সাবানপানিতে ডুবিয়েই সাথে সাথে তুলে নেবেন। সিল্কের শাড়ি খুব জোরে কাচবেন না বা ব্রাশ দিয়ে ঘষবেন না। খুব জোরে নিংরালে সিল্কের ফ্যাব্রিক ড্যামেজড হতে পারে।

indusdiva-womens-orange-and-gold-pure-silk-brocade-saree_1368625

কাপড় কাচার পর বেশি পানি দিয়ে সিল্কের শাড়ি ধুয়ে নিন। কারণ ডিটারজেন্ট সিল্কের মসৃণ ভাব নষ্ট করে। তারপর দুই লিটার পানিতে আধা কাপ হোয়াইট ভিনেগার মিশিয়ে ওই মিশ্রণে শাড়িটা একবার ধুয়ে নিন। এতে শাড়িতে কোনো ডিটারজেন্ট লেগে থাকলে উঠে যাবে। শেষে পানিতে ধুয়ে হালকা রোদে শুকিয়ে নিন।

সিল্কের শাড়িতে কোনোভাবে দাগ লাগলে ড্রাই ক্লিন করতে দিন। বাড়িতে দাগ তুলতে চাইলে জোরে ঘষবেন না। এতে দাগ স্থায়ী হয়ে যাবে। তেলমসলা দেয়া গ্রেভি বা তেলযুক্ত কোনো দাগের ক্ষেত্রে দাগের ওপর সাথে সাথে ট্যালকম পাউডার দিন। তারপর ব্রাশ দিয়ে অতিরিক্ত পাউডার ঝেড়ে ফেলে ঠাণ্ডা বা ঈষদুষ্ণ পানিতে পরিষ্কার করুন। দাগ উঠানোর জন্য গরম পানি ব্যবহার করবেন না। এতে দাগ আরো বসে যাবে।

সিল্কের শাড়ি কড়া রোদে শুকাতে দেবেন না। কড়া রোদে রঙ হালকা হয়ে যায়। লন্ড্রিতে সিল্কের শাড়ি ইস্ত্রি করতে দিলে সব থেকে ভালো হয়। বাড়িতে ইস্ত্রি করতে চাইলে অল্প ভেজা অবস্থা থাকতে থাকতে ইস্ত্রি করুন। খুব গরম ইস্ত্রি ব্যবহার করবেন না। শাড়ি উল্টো দিকে আয়রন করুন। শাড়ির পাড় বা আঁচলে এমব্রয়ডারি কাজ করা থাকলে কাপড় রেখে তার ওপর ইস্ত্রি করুন।

jne0249_55ae4595e8c4b._janasya-embroide-orange-saree-code-jne0249-
প্লাস্টিকের প্যাকেটে সিল্কের শাড়ি স্টোর করবেন না। শাড়িতে ময়েশ্চার ধরে যাবে।
মসলিনের কাপড়ে মুড়ে সিল্কের শাড়ি অন্ধকার জায়গায় রাখুন। ড্যাম্প, পোকামাকড় ভর্তি জায়গায় শাড়ি স্টোর করবেন না।
ভারী কাজ, এমব্রয়ডারি ও জারদৌসি কাজ করা সিল্কের শাড়ি হ্যাঙ্গারে না ঝুলিয়ে সোজাভাবে ভাঁজ করে রাখুন।

সিল্কের শাড়ির মধ্যে ন্যাপথলিন বল রাখবেন না। শাড়ি ড্যামেজড হতে পারে। মাঝে মধ্যে শাড়ির ভাঁজ বদলে নতুন করে ভাঁজ করে স্টোর করুন। শাড়িতে ভাঁজ পড়ে ছিঁড়ে যাবে না। বছরে অন্তত একবার শাড়ি খোলা হাওয়ায় মেলে রাখুন।
উৎস: সানবিডি

Tags: ,

There are no comments yet

Why not be the first

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Anti-Spam Quiz: