1471931559

শরতে রঙিন সাজ

বিডিকষ্ট্ ডেস্কঃ

 

শরৎ আকাশই বলে দিচ্ছে মুছে যাচ্ছে প্রকৃতির গুমট ভাব। আর বেশ শুভ্র হয়ে উঠেছে মেঘ-রাজকন্যারা। ওদিকে বৃষ্টির জলে ধুয়ে-মুছে প্রকৃতি হয়ে উঠেছে শ্যামল-সবুজ। আকাশ, মেঘ আর শ্যামল প্রকৃতির সঙ্গে লাল ঝুমকো জবা জুড়ে দিয়েছে কথকতা! প্রকৃতিতে যখন রং নিয়ে এত মাখামাখি, তখন আপনি কেন চুপটি বসে? প্রকৃতির সঙ্গে মিলেমিশে একাকার হয়ে মেতে উঠুন রঙিন সাজে। শরতের সাজ নিয়ে লিখেছেন নওশীন শর্মিলী।

প্রকৃতিতে লেগেছে শরতের ছোঁয়া। খরতাপে থেমে থেমে শান্তির সুবাতাস বইয়ে দেয় এক পসলা বৃষ্টি। প্রকৃতির এই বিচিত্র খেলায় জীবনকে আরও রঙিন করতে পোশাকেও আনতে পারেন বৈচিত্র্য। আবার সাজগোজ করে বাইরে বেরিয়ে হঠাৎ বৃষ্টির ঝাপটায় যেন পুরোটাই ম্লান না হয়, সে দিকেও খেয়াল রাখতে হবে। তাই সাজ হতে হবে সময়োপযোগী।

ঋতুভেদে সাজগোজের পরিবর্তন হয়। এই পরিবর্তন নির্ভর করে নিজস্ব রুচি ও চিন্তার উপর। এখন যেহেতু বাইরে রোদ-বৃষ্টির খেলা, তাই সাজের ক্ষেত্রে উপকরণটি অবশ্যই যেন পানিরোধক হয়। এ সময়ে দিনের বেলা গরমে গাঢ় সাজ যেমন মানানসই নয়, তেমনি অন্যদের চোখেও তা দৃষ্টিকটু লাগে। তাই সব মিলিয়ে সাজসজ্জায় স্নিগ্ধভাব থাকা চাই। এজন্য হালকা মেকআপই ভালো।

আগেই বলা হয়েছে, সাজের ক্ষেত্রে সাজের উপকরণটি পানিরোধক বেছে নেওয়া ভালো। আর সাজের উপকরণের রঙে অবশ্যই উজ্জ্বল রং বেছে নেওয়া উচিত। এ সময় লাল, নীল, বেগুনি, হলুদ, সবুজ রঙে ইচ্ছামতো সেজে উঠতে পারেন। সে ক্ষেত্রে সাজের আগে ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন মুখটা। তারপর ময়েশ্চারাইজার দিয়ে অপেক্ষা করুন ১৫ মিনিট। এবার সাজের শুরু। যেহেতু চোখ আর ঠোঁট রাঙাবেন রঙিন করে, তাই হালকা বেইজ নিয়ে নিন আগে। এর ওপর লাগাতে পারেন পাউডারও। চোখের কোণের অংশটায় খুব মন দিয়ে বেইজটা মিশিয়ে শুরু করে দিন চোখের সাজ। পোশাকের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে বেছে নিতে পারেন রঙিন কাজল। নীল, সবুজ, গোলাপি, লাল কাজলের রেখা টেনে নিতে পারেন চোখের কোণে। যারা রঙটা একটু বেশিই পছন্দ করেন, তারা পোশাকের রঙের বিপরীত রঙটিও বেছে নিতে পারেন। এটি চোখের কাজল, শ্যাডো, লিপস্টিক সব ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। পুরো চোখ যদি লাল রঙে রাঙিয়ে নেন, তবে হাইলাইটটা সোনালি দিয়ে করতে ভুল করবেন না কিন্তু। সবুজ রঙের শ্যাডোর সঙ্গে দিতে পারেন হলদেটে সোনালি হাইলাইট। বেগুনি রঙটাও কিন্তু বেশ আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে আপনার চাহনি। চোখের পাতায় বেগুনি মিশিয়ে তার সঙ্গে সোনালি হাইলাইট করতে পারেন। সাধারণত শাড়ি, সালোয়ার-কামিজের সঙ্গে সোনালি ও রুপালি রঙটাই বেশ ভালো দেখায়। ফতুয়ার সঙ্গেও যোগ করতে পারেন এর ছোঁয়া। ঠোঁটে দিতে পারেন রঙিন লিপস্টিক। লাল কফি, গোলাপি লিপস্টিকের সঙ্গে কিন্তু চোখের সাজটা হালকা হবে। অর্থাত্ চোখের সাজ আর ঠোঁটের সাজে একই সঙ্গে রঙিন যেন না হয়।

ঠোঁটের চারপাশে লাইনার দিয়ে এঁকে নিন হালকা করে, তারপর লাগিয়ে নিন পছন্দের লিপস্টিক। চুলের আকারটাও কিন্তু কম গুরুত্বপূর্ণ নয়। যারা চুলে রং ও বৈচিত্র্য আনতে চান, তারা সামনের দিকের কিছু চুল মেহগনি ও হালকা ছাই রং করতে পারেন। পাশ্চাত্য পোশাকের সঙ্গে খুলে দিন চুলটা। আর দেশীয় পোশাকের সঙ্গে করতে পারেন ইচ্ছামতো খোঁপা বা ঝুঁটি—এই হলো রঙের সাজ। শুধু লাল, হলুদ, নীল নিয়ে পোশাকের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে যেকোনো রং নিয়ে মেতে উঠুন না! সাজে বৈচিত্র্য আনাই তো নতুন সাজ।

মডেল : রুমা

বিঃ দ্রঃ রেসিপি, স্টাইল, রূপচর্চা, গৃহসজ্জা, টেকনোলজি ও ইসলামিক জীবন, ইত্যাদি। বাংলা ব্লগ রেগুলার আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডিকষ্ট্

Tags: ,

There are no comments yet

Why not be the first

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Anti-Spam Quiz: