lifestyle_bg_233221942

বর্ষায় বাইরে যাওয়ার আগে কেমন পোশাক পরবেন

BDcost Desk:

পঞ্জিকা বলছে, শ্রাবণ আছে আর মাত্র ১৫ দিন। কিন্তু বর্ষার পরেও এখানকার মেঘ আরও কিছুদিন বৃষ্টি ঝরাবে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ হাফিজুর রহমান জানালেন, সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বৃষ্টি থাকবে। আর এই মৌসুমের যা বৈশিষ্ট্য—‘কখনো কড়া রোদ, কখনো ঝুম বৃষ্টি’ও লক্ষ করা যাবে এই সময়জুড়ে। এমন ঋতুতে যাঁদের নিয়মিত বাইরে বের হতে হয়, তাঁদের জন্য এটি মস্ত বড় এক বিড়ম্বনার মৌসুম। এই সময়ে বাইরে বের হওয়ার আগে তাই কিছু প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে পারেন।

এই মৌসুমে কেমন পোশাক পরবেন…
ডিজাইনার মারিয়া সুলতানা জানালেন, গরমে সুতি কাপড়ের জুড়ি নেই। কিন্তু সমস্যা হলো ভিজে গেলে শুকাতে একটু সময় নেয়। আর ভেজা অবস্থায় গায়ের সঙ্গে গেলে থেকে অস্বস্তিও সৃষ্টি করে। এমন ঋতুতে তাই পাতলা জর্জেট বা শিফন কাপড়ের পোশাক পরা ভালো। এতে খুব বেশি গরমও লাগবে না আবার বৃষ্টিতে ভিজলে শুকাতে সুতি কাপড়ের চেয়ে কম সময় নেবে। তবে, শিফন নিয়মিত ব্যবহারের উপযোগী নয়। মারিয়ার মতে, লিনেন কাপড় এ সময়ের জন্য সেরা। গরমের জন্য আরামদায়ক তো বটেই, আর ভেজার পর বাতাসের নিচে থাকলে অল্প সময়েই শুকিয়ে যায়।

টানা বৃষ্টিতে রাস্তায় পানি জমে গেলে অনেক সময় পায়জামা বা প্যান্ট গুটিয়ে রাস্তায় নামতে হয়। এ জন্য এমন সময় পালাজ্জো বা স্কার্ট এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। শর্ট কুর্তা বা সেমি লং কামিজের সঙ্গে এখন পরতে পারেন জিনস, পেনসিল প্যান্ট, লেগিংস বা লিনেনের ট্রাউজার। আঁটসাঁট ও সাদা-কালো রঙের পোশাক এই সময়ের জন্য নয়।
ছেলেরা সুতির হাফহাতা শার্ট পরতে পারেন। আবার কৃত্রিম তন্তু ও সুতির মিশ্রণে তৈরি পোশাকও এ সময় পরা যেতে পারে। মারিয়া সুলতানা, আরও একটি বুদ্ধি দিলেন। তিনি জানালেন, ছেলেরা পোশাক কেনার আগে লেবেল দেখে নিতে পারেন। বেশির ভাগ সময়েই ছেলেদের শার্ট ও টি-শার্টে কাপড়ের উপাদান ও এর পরিমাণ দেওয়া থাকে। সুতি আর সিনথেটিক সমান পরিমাণে আছে, এমন পোশাক এই ঋতুতে সবচেয়ে ভালো, যদি কারও সিনথেটিক কাপড়ে অস্বস্তি না লাগে।

জুতা যেমন হলে ভালো…
বৃষ্টি হলেই কাদা হবে, এ কথা নতুন করে মনে করিয়ে দেওয়ার নিশ্চয়ই প্রয়োজন নেই। ছোট করে মনে করিয়ে দিই। বৃষ্টির মধ্যে চামড়ার জুতা একদম পরা যাবে না। আজকাল বাজারে প্লাস্টিকের কিছু জুতা পাওয়া যাচ্ছে। এগুলো পরা যেতে পারে। বর্ষায় কাদা থেকে পা বাঁচাতে অনেকে উঁচু স্যান্ডেল পরেন। তবে, অভ্যস্ত না হলে উঁচু জুতা পরা উচিত নয়। এতে বরং দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। আর জুতা কেনার সময় সোল দেখে নিতে হবে। পিচ্ছিল সোলের জুতা-স্যান্ডেল শুধু এই মৌসুমে নয়, সব সময় এড়িয়ে চলা উচিত। বৃষ্টির দিনে পাট ও চামড়ার ব্যাগও আলমারিতে তুলে রাখুন। ভিজে গেলেই শেষ!

বর্ষায় বাইরে যাওয়ার আগে সঙ্গে যা যা রাখতে পারেন
১। ছাতা বা রেইনকোট। ভেজা ছাতা ও রেইনকোট অনেক সময় বাইরে মেলে দেওয়া সম্ভব হয় না। ভেজা ছাতা নিয়ে কোনো অফিস বা মার্কেটে গেলে তা থেকে টপটপ করে পানি পড়তে থাকে; যা খুব বিব্রতকর। এ জন্য ব্যাগে বড় একটি পলিথিনের ব্যাগ রাখতে পারেন। ভেজা ছাতা ও রেইনকোট সঙ্গে সঙ্গে মেলে দিতে না পারলে সেই প্যাকেটে ঢুকিয়ে রাখুন।
২। ব্যাগে রুমাল রাখা যেতে পারে। ভিজে গেলে গা ও চুল মুছে নিতে পারবেন।
৩। ছোট একটা পলিথিন বা প্লাস্টিক ব্যাগ পকেটে রাখুন। মোবাইলকে ভিজে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করতে পারবেন।
৪। অফিসে পরার জন্য একটি বাড়তি স্যান্ডেল ও সম্ভব হলে বাড়তি পোশাক রাখুন। কাক ভেজা হয়ে গেলে পরনের পোশাক পালটে নিতে পারেন।
৫। মেয়েরা এ সময় লিপস্টিক, আইলাইনার, মাসকারা ইত্যাদি প্রসাধনী ব্যবহারের আগে তা পানিরোধক কি না, দেখে নেবেন।

বিঃ দ্রঃ রেসিপি, স্টাইল, রূপচর্চা, গৃহসজ্জা, টেকনোলজি ও ইসলামিক জীবন,ইত্যাদি। বাংলা ব্লগ রেগুলার আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডিকষ্ট্

Tags: ,

There are no comments yet

Why not be the first

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Anti-Spam Quiz: